বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০৮ অপরাহ্ন

দেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
সংবাদ শিরোনামঃ
দুটি আর্ন্তজাতিক স্বীকৃতি পেলেন প্রথম সারির করোনা যুদ্ধা জহিরুল হক বিল্লাল আর্ন্তজাতিক স্বীকৃতি পেলেন এড. মো: আয়ুবুর রহমান ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদকসহ আটজন গ্রেপ্তার কর্মকর্তার অবহেলায় গৃহহীনরা পায়নি প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর!  বর্ষাকালে ত্বকের সুস্থতার জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ গুরুদাসপুরে পীরপাল মাজার শরীফের অর্থআত্মসাত ও গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ সাবেক খাদেমের বিরুদ্ধে নাসিরনগরে ” বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি” পালিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসামীর ছুরিকাঘাতে দারোগা নিহত কেবল মাইকেই স্বাস্থ্যবিধির প্রচারণা, বাস্তবে উল্টো চিত্র! ভ্রুণ হত্যাকারী প্লাবনের গ্রেপ্তার দাবীতে নাসিরনগরে মানববন্ধন
আজীবন জনকল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই …..মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল

আজীবন জনকল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই …..মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল

 

অত্যন্ত মিষ্টিভাষী ও উদারমনা সমাজসেবী মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল। পিতা-(মৃত তোজাম্মেল হোসেন) টাংগাইল জেলার গোপালপুর থানার হেমনগর শিমলাপাড়া গ্রামে ১৯৮৩ সালে এই অনন্য ব্যক্তিত্বের অধিকারী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দুইবার ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার নির্বাচিত হন। এই সমাজসেবী সমাজের মানুষের কল্যাণে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকার প্রতিনিধি হিসেবে জনগনের প্রতি তার দায়বদ্ধতার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয় মানবজীবনের প্রতিনিধির সঙ্গে।

মানবজীবন: আপনি কোন রাজনৈতিক মতাদর্শের সাথে জড়িত থেকে জনকল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন?
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: আমি আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে ওতোপ্রোত ভাবে জড়িত। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে লালন করে এবং তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে আমার অবিরাম পথচলা সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে। আমি বর্তমানে হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করছি। এছাড়া শিমলাপাড়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সভাপতি, শিমলাপাড়া বায়তুল মামুর জামে মসজিদের সভাপতি, টাঙ্গাইল জেলা প্রকৌশল নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন হেমনগর শাখা সাধারন সম্পাদক, সিমলাপাড়া হামিউস সুন্নাহ নূরানী ক্যাডেট মাদরাসার ক্যাশিয়ার, শিমলাপাড়া ঈদগাহ মাঠ এর সাবেক অভিভাবক সদস্য এবং বর্তমানে দাতা সদস্য ও পি টি এ কমিটির সভাপতি, হেমনগর শশীমূখী উচ্চ বিদ্যালয়, হেমনগর প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিমলাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ও দক্ষিন হেমনগর সরকারী প্রাথমিক বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সদস্য হিসেবে আছি এবং প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের পাশে থেকে সর্বত্ম জনকল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি।

 

মানবজীবন: দুইবার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর কি কি কাজ করে যাচ্ছেন এলাকার উন্নয়নে?
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: ইউনিয়ন পরিষদ ব্যবস্থার গুরুত্বপূর্ণ অংশ পরিষদের সদস্যগণ। নিজ ওয়ার্ড এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যক্তি ও বিভিন্ন পেশাজীবি প্রতিনিধিদের নিয়ে আমি ওয়ার্ড আইন- শৃংখলা রক্ষা কমিটি গঠন ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করে থাকি। এই কমিটি ওয়ার্ডের অপরাধ, বিশৃংখলা, চোরাচালান দমন, অপরাধমূলক ও বিপদজনক ব্যবসা সম্পর্কে ইউনিয়ন পরিষদকে অবহিত করে। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কমিটির মাধ্যমে এলাকার জন্ম-মৃত্্ুয, অন্ধ, ভিক্ষুক, দুঃস্থ ও অসহায় বিধবা, এতিম, গরীব প্রতিবন্ধী প্রভৃতি ব্যক্তিগণের নিবন্ধনের জন্য গ্রাম পুলিশের মাধ্যমে দুটি ফরম পূরণ করার ব্যবস্থা করে থাকি।
আমি ইউপি সদস্য হিসেবে এলাকার আদমশুমারীসহ সকল ধরণের শুমারী পরিচালনায় কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করি। এলাকার গণ্যমাণ্যব্যক্তি ও যুব সমাজ সহ বিভিন্ন শ্রেণীর প্রতিনিধিদের নিয়ে ওয়ার্ড দুর্যোগব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন ও কমিটির সভাপতির দায়িত্বও পালন করি।
এলাকার পুকুর বা পানিসরবরাহের বিভিন্ন জায়গায় শণ, পাট বা অন্যান্য গাছ ভেজানো, আবাসিক এলাকার মধ্যে চামড়া রং বা পাকা করা নিয়ন্ত্রণকরন, আবাসিক এলাকার মাটি খনন করে পাথর বা অন্যাণ্য বস্তু উঠানো, ইট, মাটির পাত্র বা অন্যান্য ভাটি নির্মাণ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করি। এলাকার অন্যান্য সংস্থার কাজে এবং ইউনিয়ন পরিষদ দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা, আরাম-আয়েস ও অন্যান্য সুবিধা প্রদানে চেয়ারম্যানকে সহায়তা করি। সরকার ও ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে নির্দেশিত অন্যান্য কাজগুলো ন্যায়নিষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন করি।
এলাকায় কৃষি উৎপাদন বাড়ানো, বিভিন্ন আয় বর্ধক প্রকল্প/কর্মকান্ডে জনগণকে অংশ নিতে উৎসাহিত করে এ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে সুপারিশ পেশকরে থাকি। এলাকায় নিরক্ষরতা দূরকরা, পরিবার পরিকল্পনা, জনস্বাস্থ্য ও প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা সম্পকের্ জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে এ সংক্রান্ত প্রকল্প তৈরি করে, গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তা করে থাকি। ইউনিয়ন পরিষদ পরিচালিত প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র ব্যবস্থাপনায় সহায়তা করি।
এলাকায় জনগনের সম্পত্তি যথা-জনপথ, রাজপথ, সরকারী স্থান, উন্মুক্ত জায়গা, উদ্যান, খেলারমাঠ, কবরস্থান, শ্মশানঘাট, সভার স্থান, সৌধ, রাস্তা, পুল, সেতু, কালভার্ট, বাঁধ, খাল, বিল, টেলিফোন, বিদ্যুৎ, গ্যাস ইত্যাদি সংরক্ষণের ব্যবস্থা করে যাচ্ছি। এলাকায় স্বাস্থ্যসম্মত ল্যাট্রিন নির্মাণ ও ব্যবহারে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছি। এলাকায় খেলাধুলার উন্নয়ন, গ্রন্থাগার,পাঠাগারের ব্যবস্থা ও জাতীয় উৎসব পালনের ব্যবস্থা এবং শরীর চর্চা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে উৎসাহ ও সহায়তা প্রদান করছি।
এলাকায় নিরাপদ পানি ব্যবহারের জন্য কূয়া, নল কূপ, জলাধার, পুকুর, দিঘী ও পানি সরবরাহের বিভিন্ন উৎস সংরক্ষণ ও দূষণ রোধের ব্যবস্থা নিয়েছি।
এলাকায় প্রাথমিক স্কুলগামী শিশুদের স্কুলে পাঠানোর জন্য এলাকাবাসীকে উদ্বুদ্ধ করনসহ বিভিন্ন জনকল্যাণ মূলক কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছি।

মানবজীবন: আপনি ভবিষ্যৎ এ কি হওয়ার স্বপ্ন দেখেন?
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: আজীবন জনকল্যাণে নিজেকে আত্মনিয়োগের কাজে নিয়োজিত রাখতে চাই এটাই আমার একমাত্র স্বপ্ন। আমি আগামী নির্বাচনে জনগনের প্রতিনিধি হিসেবে চেয়ারম্যান পদে মনোনীত হতে পারলে আরো ব্যাপক পরিসরে এলাকার মানুষের ভাগ্যনোন্নয়নে কাজ করে যাবো। সমাজের নিপিড়িত মানুষের ভাগ্যনোন্নয়নে যতটা সম্ভব নিজেকে বিলিয়ে দেব। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের জন্য মনটা সমসময়ই কাঁদে। তাই চেষ্টা থাকবে একনিষ্টভাবে সমাজসেবা করে জাওয়ার। এছাড়া মৎস খামার ও ডেইরি ফার্ম নিয়ে কাজ করছি।

মানবজীবন: এ যাবৎ কি কি সম্মাননা পেয়েছেন?
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য ৬ বার সম্মাননা পেয়েছি। এর মধ্যে ভাষা শহিদ সম্মাননা-২০১৫, স্বাধীনতা সম্মাননা পদক-২০১৬, ভোরের বাংলাদেশ ডটকম পত্রিকা এর প্রতিষ্ঠাতা সম্মাননা পদক-২০১৬, ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী সম্মাননা-২০১৭, ভারত বাংলাদেশ প্রগতি বাংলা বেস্ট এক্্িরলেন্স এ্যাওয়ার্ড-২০১৮।

মানবজীবন: বর্তমান সরকারের উন্নয়নমুলক কর্মকান্ড নিয়ে কিছু বলুন।
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: জনগণের সহযোগিতার ফলে উন্নয়নের যে কাজগুলি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ শুরু করেছিল, তা সমাপ্ত করতে পারছে। পাশাপাশি নতুন নতুন উন্নয়ন কর্মসূচী গ্রহণ করে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার। সরকারের টানা নয় বছরে দেশের রাজনীতিসহ সবকিছুর নিয়ন্ত্রণ জননেত্রি শেখ হাসিনার হাতে থাকলেও সে পথ মসৃণ ছিল না। জ্বালাও-পোড়াও, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাসহ দেশি-বিদেশি নানা ষড়যন্ত্র, বাধা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এগোতে হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি, ক্রীড়া, পরিবেশ, কৃষি, খাদ্য, টেলিযোগাযোগ, সংস্কৃতি, সামাজিক নিরাপত্তা, মানবসম্পদ উন্নয়ন এমন কোনো খাত নেই যে খাতে অগ্রগতি সাধিত হয়নি। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে গত কয়েক বছরে দেশে অবকাঠামো উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, পুষ্টি, মাতৃত্ব এবং শিশু স্বাস্থ্য, প্রাথমিক শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যা দেশের গন্ডি পেরিয়ে প্রশংসিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলেও।

নিজস্ব অর্থে পদ্মার ওপর ৬ দশমিক ১ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণ করার সাহস দেখাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন থেকে সরে যাওয়ার পর বিশাল এ প্রকল্প হাতে নেয়ার ঘটনা অনেক দেশ ও সংস্থার সন্দেহ ও বিস্ময় প্রকাশ করলেও সে স্বপ্ন এখন দৃশ্যমান। এক লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকা খরচ করে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করছে বাংলাদেশ। ২০৪১ সালে উন্নত দেশে উন্নীত হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগও চলমান। এ ছাড়া মেট্রোরেল, এলিভেটেট এক্সপ্রেসহ আরো কিছু বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে সরকার। দেশের প্রথম ৬ লেনের ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ের আগেই সম্পন্ন হয়েছে। দেশের আইটি খাতের নতুন সম্ভাবনা যশোরে ‘শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক’ প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেছেন। মাতারবাড়িতে ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে কোল পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিপিজিসিবিএল) সুমিতোমোর নেতৃত্বাধীন জাপানি কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের সোনার বাংলাদেশ।

মানবজীবন: বর্তমান সমাজের মানবিক মুল্যোবোধের অবক্ষয়ের প্রেক্ষাপটে আপনার অভিমত কি?
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: আমি এক্ষেত্রে বলব, একজন মানুষ তখনই পরিপূর্ন মানুষে রুপান্তরীত হয় যখন তার মধ্যে মানবিক গুনাবলী বিকশিত হয়। যখন তার মধ্যে মানবিক গুনাবলী অর্থাৎ নৈতিক জ্ঞান হ্রাস পায় তখন সে মনুষ্যত্ব হাড়িয়ে পশুতে পরিনত হয়। আর এই মানুষরুপী পশুদের জন্যই সমাজের সর্বক্ষেত্রে আজ এই দৈন্যতা। মাদকাসক্ত,ধর্ষন, সর্বোপরি দুর্নীতির করাল গ্রাসে আজ যে জর্জরিত জনজীবন তার মুলেই রয়েছে নৈতিক জ্ঞানের অভাব। সততা,আদর্শ ও ন্যায়নিষ্ঠ বিচারিক জ্ঞানের অভাবে প্রতিনিয়ত মানবিক মুল্যোবোধের অবক্ষয় ঘটছে। আর এ থেকে উত্তরনের জন্য ইসলামের পরিপূর্ন জ্ঞানের বিকল্প কিছু নেই। আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ সন্তানদের যদি ইসলামিক জ্ঞানে শিক্ষিত না করতে পারি তাহলে এ অবক্ষয় ভয়াভহ রুপ নিবে। তাই বলব, আসুন আমরা শ্রেষ্ঠ জাতি মুসলিম হিসেবে আল্লাহর দেয়া একমাত্র পুর্নাঙ্গ জীবন বিধান ইসলামকে প্রাধান্য দিয়ে জীবনকে গড়ে তুলতে পারি তবেই পাব মুক্তির দিশা।

মানবজীবন: আপনার মুল্যবান কথাগুলো আমাদের পত্রিকার মাধ্যমে জনগনের কাছে পৌছাতে পেরে আমরা আনন্দিত। আপনার সুদীর্ঘ পথচলা কামনা করছি।
মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল: আপনাদেরকেও আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন রইল। আমার মনের একান্ত ইচ্ছেগুলো প্রকাশ করতে পেরে ভালো লাগলো। এগিয়ে চলুক আপনাদের পথচলা।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design: About IT
x Close

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

Shares
CrestaProject