রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন

দেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
সংবাদ শিরোনামঃ
ইসলামের দৃষ্টিতে মূর্তি ও ভাস্কর্য  নাছিরপুর ঈদগাহের প্রতিরক্ষা দেয়ালের নির্মাণের কাজ পরিদর্শন করেন – রাফি উদ্দিন  নারী উদ্যোক্তাদের কল্যাণে আজীবন করে যাব …রুপা আহমেদ, প্রধান অ্যাডমিন, নারী উদ্যোক্তা বাংলাদেশ   ম্যারাডোনার মরদেহ তিনদিন থাকবে প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে নাসিরনগরে মোবাইল কোটে ৬৮০০ টাকা অর্থদন্ড আদায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ছাদ থেকে পড়ে দুই নির্মাণ শ্রমিক হতাহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়ার ইন্তেকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ শুরু দেশের মানুষ পুলিশের খারাপ আচরণ প্রত্যাশা করেনা : ডিআইজি চট্টগ্রাম রেঞ্জ চট্টগ্রামে স্বাস্থ্য সহকারীর বদলীর প্রতিবাদে নাসিরনগরে মানববন্ধন 
গাজীপুরে বেতনের দাবিতে আন্দোলন

গাজীপুরে বেতনের দাবিতে আন্দোলন

বাবুল সরকার বাপ্পি, আশুলিয়া প্রতিনিধি:

শ্রমিক অসন্তোষ কমেনি গার্মেন্টস সেক্টরে। নাম মাত্র সুবিধার কথা বলে মুনাফার ৯৫শতাংশই ঘরে তোলে মালিক পক্ষ। গেল দু-দশক হলো গার্মেন্টস সেক্টর দেশের অর্থনীতির বড় অংশের যোগানদাতা। কিন্তু এর পেছনে যাদের অক্লান্ত পরিশ্রম, যাদের শ্রমের বিনিময়ে একটু একটু করে গড়ে উঠেছে জাতীয় অর্থনৈতিক কাঠামো তাদের পেটে ভাত নাই, ন্যায্য কথা বলার অধিকার নেই। দিন দিন অবহেলিত এসব খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগের শেষ কবে।বাংলাদেশ সরকারের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত দেশের ইকোনমিক জোন গুলোতে গড়ে উঠা কোম্পানিগুলোর শ্রমিক সন্তুষ্টি থাকলেও এর ঠিক উল্টো পিঠ দেখতে হয় প্রাইভেট কোম্পানিগুলোর শ্রমিকদের।

আজ সকাল থেকে গাজীপুর গ্রীন সোয়েটারের সামনে চার মাস ধরে বকেয়া বেতন আদায়ের দাবিতে আন্দোলন করে পাওনাদার শ্রমিকরা। গ্রীন সোয়েটারের মালিক মোঃ আনোয়ার শাহাদাৎ শ্রমিকদের বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়েছেন। বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা বেতনের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে ফ্যাক্টরীর সামনে অবস্থান নেয়। পুলিশ লাঠিচার্জ করেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয়েছে। পরে পুলিশ রাবার বুলেট, কাদানি গ্যাস ও গরমপানি নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এসময় গাজীপুর জেলার ভারপ্রাপ্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেড ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ১১ তারিখের মধ্যে বেতন পরিশোধ করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত মোছাঃ উম্মে সালমা মানবজীবন২৪ কে বলেন, “আমি একজন লেবার সর্দার। আমি দীর্ঘদিন যাবত কোম্পানির সাব-কন্ট্রাক্টের কাজ করেছি। কিন্তু আমার ৮ লক্ষ টাকার বিল এখনো পরিশোধ করা হয়নি। সাব-কন্ট্রাক্টে যারা আমার মাধ্যমে কাজ করছে তারা বেতনের দাবিতে আমার পিছনে পড়ে আছে। কোম্পানি টাকা না দিলে এতো টাকা আমি কিভাবে পরিশোধ করবো। টাকা চাইতে গেলে বিভিন্ন ভাবে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে আনোয়ার শাহাদাৎ সাহেব। আমি একজন হিন্দু পরিবারের সন্তান, কিন্তু আজ ইসলাম কে ভালবেসে ইসলামকে গ্রহণ করেছি। কিন্তু কোন বিবেকবান মুসলমান আজকে আমার পক্ষে কথা বলছেনা। তিনি আর ও জানান মালিক আনোয়ার শাহাদাৎ একজন ভুমিদষ্যু, একজন চোরাকারবারি, সন্ত্রাসের গডফাদার হিসাবে পরিচিত এলাকায়। নেতৃস্থানীয় ক্ষমতাধর লোকেদের ছত্রছায়ায় তিনি গড়েতুলেছেন গার্মেন্টস ফ্যাক্টরী। আমি আনোয়ার শাহাদাৎ এর বিরুদ্ধে বিচার চাই দেশের সুধী সমাজের কাছে আমার দাবি তুলে ধরলাম”

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design: About IT
x Close

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

Shares
CrestaProject