সাংবাদিকতায় আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
  • রাত ৮:২৩ | ২৫শে মে, ২০১৯ ইং , ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২০শে রমযান, ১৪৪০ হিজরী

প্রত্যেক পরিবারে চাকরির ব্যবস্থা

 কর্ম সংস্থানকে প্রাধান্য দিয়ে  আগামী বাজেটে প্রত্যেক পরিবারে একটি করে চাকরির ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

রোববার (১০ মার্চ) রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে অর্থমন্ত্রী এমন তথ্য জানান। এটি ছিলো আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম প্রাক-বাজেট আলোচনা।

প্রাক-বাজেট আলোচনায় বেসরকারি গবেষণা সংস্থা পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (পিআরআই), ইকোনমিক রিসার্চ গ্রুপ (ইআরজি), বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বিআইডিএস) ও বাংলাদেশ জুট গুডস এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

দীর্ঘ তিনঘণ্টা আলোচনা শেষে অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল বলেন, আগামী বাজেট হবে সংক্ষিপ্ত, কিন্তু টাকার অংকে বড় হবে। বাজেট সবার জন্য হবে। সংক্ষিপ্ত বাজেট হলেও সবার কথা ঠাঁই পাবে বাজেটে। সামাজিক নিরাপত্তার বিষয়টি বাজেটে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে। প্রতিটা পরিবারের যেন একটা করে চাকরি পায় সেই ব্যবস্থা থাকবে বাজেটে। প্রতিটা পরিবারে কিভাবে চাকরির ব্যবস্থা করা হবে সেটা সময় হলেই আপনারা দেখবেন, এখনই এ বিষয়ে কিছু বলবো না।

ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে এক প্রশ্নের জাবাবে মন্ত্রী বলেন, ১ জুলাই থেকে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হবে ঠিকই, কিন্তু সেটা স্বল্প পরিসরে। বিশ্বের কোথাও এমন কি ভারতে এক সঙ্গে বাস্তবায়ন হয়নি। এ জন্য আমরা ধীরে ধীরে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করব।

তিনি বলেন, ভ্যাট আইনে বাস্তবায়নে যদি সারাদেশে ৫০ হাজার মেশিন বসানো হয়, তাহলে সেই মেশিন পরিচালনা করতে গিয়ে জনবল দরকার হবে। এভাবেই কর্মসংস্থানের সুযোগের সৃষ্টি হবে।

আসন্ন বাজেট সংক্ষিপ্ত হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বাজেটে কথা কম থাকবে কিন্তু কাজের কথা বেশি থাকবে। যেমন সিঙ্গাপুর ১৮ পাতার বাজেট দেয়, আমরাও ছোট কথার বাজেট পেশ করব। বাজেটের কথা হবে সহজ, যাতে করে দেশের সব মানুষ বুঝতে পারেন। বাজেট হবে প্রবৃদ্ধি বান্ধব, কর্মসংস্থান বান্ধব। প্রাধান্য পাবে রফতানি ও দারিদ্র বিমোচন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার নির্বাচনী ইশতেহারে বলা হয়েছে ‘আমার গ্রাম আমার শহর’। বাজেটেও এ বিষয় গুরুত্ব পাবে। গ্রামে সব ব্যবস্থা করে দেবো। অবকাঠামো উন্নয়নের সব ছোঁয়া লাগবে গ্রামে। গ্রামে এখন ৪জি আছে, কিছু দিন পরে দরকার হলে ৫জি চলে যাবে। গ্রামে বিদ্যুৎ চলে গেছে আমরা অন্যান্য অবকাঠামো উন্নয়ন করব। বিচার পেতে গ্রামের মানুষকে ঢাকায় আসতে হবে না, সেই বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

আগামী বাজেটে দু’টি বিষয় মূল এজেন্ডা উল্লেখ করে মুস্তফা কামাল বলেন, একটি গ্রামে শহরে সুবিধা অন্যটি যুবগোষ্ঠী কর্মসংস্থান। আমরা যুব সমাজকে প্রকৃত অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে তৈরি করতে চাই। এ জন্য সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক জোন করা হচ্ছে। বাস্তবে ইকোনোমিক জোনের সংখ্যা আরও বেড়ে যাবে। এগুলো কাজ শেষ হলে গ্রামীণ অর্থনৈতিক অবস্থা চাঙ্গা হবে এবং লাখ লাখ যুবকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. ফজলে কবির, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদার, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ইউনুসুর রহমান প্রমুখ।

Play
Play
previous arrow
next arrow
Slider

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

তথ্য-প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার পথে একটি বড় বাধা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছিল। এই ধারার কারণে বহু সাংবাদিককে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা হয়েছে। অনেককে কারাগারেও যেতে...

 প্রখ্যাত লেখক ও সিনিয়র সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ আর নেই (ইন্নালিল্লাহি… রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। রোববার (২১ এপ্রিল) স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ২০ মিনিটে থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়...

previous arrow
next arrow
ArrowArrow
Slider

  ফারা মাহমুদা চৌধুরী (শিল্পী) মানবদরদী ও মানবহিতৈষি ব্যক্তিত্ব হিসেবে অতিথিদের হাত থেকে সম্মাননা পদক গ্রহণ করছেন।   ইমদাদুল হক তৈয়বঃ ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এই নৈতিকতাবোধ থেকেই বুকে নীতি আদর্শ...

Archives

Jun0 Posts
Jul0 Posts
Aug0 Posts
Sep0 Posts
Oct0 Posts
Nov0 Posts
Dec0 Posts
Jan0 Posts
Feb0 Posts
Mar0 Posts
Apr0 Posts
May0 Posts
Jun0 Posts
Jul0 Posts
Aug0 Posts
Nov0 Posts
L0go

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি