বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ১০:২০ পূর্বাহ্ন

দেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
সংবাদ শিরোনামঃ
আনুশকার মায়ের পা জড়িয়ে ধরে চিৎকার করে যা বলেছিলো দিহান নামাজে আমরা যা বলি, তার অর্থ জানলে নামাজে অন্য চিন্তা মাথায় আসবেনা!! মোটরসাইকেলের ধাক্কায় অর্থনীতিবিদ শামসুল আলম গুরুতর আহত ছাড়তে হয়েছে লবণচাষ, এখন চায়ের দোকানি মুনাফ দুই কিলোমিটারের মধ্যে স্কুল নির্মাণের প্রস্তাব বাতিলের দাবি মবিলের বোতলে ১০ হাজার ইয়াবা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর স্ত্রী মারা গেছেন শীতলক্ষ্যা নদী খননের নামে সিবিএ নেতা জাহাঙ্গীরের সেল্টারে মাটি বিক্রির অভিযোগ, হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা সাংবাদিক নির্যাতন : দুই পুলিশের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ দিহান-আনুশকার ম্যাসেঞ্জারে চ্যাট ফাঁ’স- ‘চা;ঞ্চল্যকর’ তথ্য পেল পু’লিশ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিন চিকিৎসকসহ ১৩জন করোনায় আক্রান্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিন চিকিৎসকসহ ১৩জন করোনায় আক্রান্ত

[জেলার সাত উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ জনে উন্নীত]
এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ২৪ ঘন্টায় তিনজন চিকিৎসকসহ ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এই নিয়ে জেলার নয়টি উপজেলার মধ্যে সাত উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা উন্নীত হলো ৩২জনে। ২২ এপ্রিল বিধবার দুপুরে সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ জানান, বুধবার দুপুরে ঢাকা থেকে আসা পিসিআর রিপোর্টে ১৩ জনের পজিটিভ এসেছে।এদের মধ্যে জেলার বিজয়নগরে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের দুইজন চিকিৎসক ও পাঁচজন স্বাস্থ্য সহকারিসহ সাতজন, আখাউড়া উপজেলায় এক চিকিৎসক পরিবারের পাঁচজন ও নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন চিকিৎসক আক্রান্ত হয়েছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে, জেলার নয়টি উপজেলার মধ্যে সাতটি উপজেলাই করোনা ভাইরাসের থাবার শিকার। তবে এর মধ্যে সবচে’ বেশি আক্রান্ত জেলার আখাউড়া উপজেলায়। এই উপজেলায় আক্রান্তেরর সংখ্যা ১৩ জন।এদিকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া দুইজনের মধ্যে একজন এই উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের রাণীখার গ্রামের গৃহবধূ (৪০)। তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে ফিরেছিলেন। বিজয়নগর উপজেলায় ৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলায় দ্বিতীয় অবস্থানে। তবে উল্লেখ্য যে, এই উপজেলার স্বাস্থ কমপ্লেক্সটিকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে ঘোষিত। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবার দিক থেকে জেলায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে নাসিরনগর উপজেলা। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের মকবুলপুর গ্রামের আবদুল গফুরের পুত্র মালয়েশিয়াফেরত শাহ আলম (৩৫)। বর্তমানে এই উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত পাঁচজন তারই পরিবারের। এর মধ্যে তার স্ত্রী শারমিন বেগম এবং তিন বছরের একমাত্র কন্যা সন্তান রেখা আক্তারও। তাছাড়া জেলার নবীনগর উপজেলায় এক চিকিৎসকসহ দুইজন এবং জেলার সদর, সরাইল এবং বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় একজন করে করোনায় আক্রান্ত
হয়েছেন।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Design: About IT
x Close

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

Shares
CrestaProject