সাংবাদিকতায় আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
  • সকাল ৬:৫৪ | ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৪ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লাগাতার পরিবহন ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
নিষিদ্ধ সত্ত্বেও মহাসড়কে চলে তিন চাকার যানবাহন। ঘটায় দুর্ঘটনা, দায় বর্তায় পরিবহন সেক্টরে। যত্রতত্র গড়ে ওঠা অবৈধ স্ট্যাণ্ডে ঘটায় জনদুর্ভোগ, দায় চাপে পরিবহন সেক্টরে। এসব অনিয়ম রোধসহ সাত দফা দাবী আদায়ে লাগাতার পরিবহন ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি দিয়েছে জেলা সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। আজ শনিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এই হুঁশিয়ারি দেন সংগঠনের নেতারা।

পরিবহন নেতাদের সাত দফা দাবী উত্থাপন এবং লিখিত বক্তব্যে জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ বলেন, আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে জেলার সড়ক-মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল করছে। অদক্ষ চালকেরা এসব নিষিদ্ধ যানবাহন চালানোয় প্রায়শই দুর্ঘটনায় মানুষের জানমালের ক্ষতি হচ্ছে। পাশাপাশি সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা উপেক্ষা করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বিভিন্ন স্থানে সিএনজি চালিত অটোরিকশার অবৈধ স্ট্যাণ্ড তৈরি করে সৃষ্টি করা হচ্ছে যানজট। অার এসবের দায় চাপে পরিবহন সেক্টরের উপর। গত ৭ জুলাই জেলা সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ নেতারা জরুরি সভা করে সাত দফা দাবী বাস্তবায়ন না হলে ২৫ জুলাই ভোর ছয়টা থেকে লাগাতার পরিবহন ধর্মঘট কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেন। সাধারণ মানুষের জানমাল এবং পরিবহন সেক্টরের বৃহত্তর স্বার্থে সরকার এসব দাবী বাস্তবায়ন না করলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ধর্মঘট শুরু হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি হাজী জসীম উদ্দিন জমশেদ, সহ-সভাপতি কাজী আজাদ, জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান চৌধুরী, লোকাল বাস পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. আবুল বাশার ও সাধারণ সম্পাদক নিয়ামত খানসহ অন্যান্য পরিবহন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Play
Play
previous arrow
next arrow
Slider

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

তথ্য-প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার পথে একটি বড় বাধা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছিল। এই ধারার কারণে বহু সাংবাদিককে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা হয়েছে। অনেককে কারাগারেও যেতে...

    ১৭ই মার্চ, ১৯২০ সালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় শেখ লুৎফুর রহমান এবং সায়রা বেগমের ঘরে জন্ম নেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ছয় ভাইবোনের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। গোপালগঞ্জ...

previous arrow
next arrow
ArrowArrow
Slider

  অত্যন্ত মিষ্টিভাষী ও উদারমনা সমাজসেবী মোঃ মাহবুব হাসান টুটুল। পিতা-(মৃত তোজাম্মেল হোসেন) টাংগাইল জেলার গোপালপুর থানার হেমনগর শিমলাপাড়া গ্রামে ১৯৮৩ সালে এই অনন্য ব্যক্তিত্বের অধিকারী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দুইবার...

L0go

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি