সাংবাদিকতায় আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন: ০১৭১১৫৭৬৬০৩
সর্বশেষ সংবাদ
  • দুপুর ১২:০৩ | ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৭ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

Monthly Archive :২০১৯

নবীনগরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একযুগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান

মোহাম্মদ হেদায়েতউল্লাহ্ নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া থেকে

সারাদেশের ন্যায় মঙ্গলবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একযুগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালিত হয়। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ অভিযানে সমবেত হন উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা কর্মচারীরা ছাড়াও রাজনৈতিক,সামাজিক, শিক্ষক,সাংবাদিক,মুক্তিযোদ্ধা,স্কাউট, বিএনসিসি নেতৃবৃন্দ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) জেপি দেওয়ান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার মিজানুর রহমান,উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোকাররম হোসেন, উপজেলা সমবায় অফিসার মহিউদ্দিন আহমেদ,সাবেক মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার- শামসুল আলম সরকার,উপজেলা সমবায় সমিতির সভাপতি আব্দুস সোবহান,আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক নাছির উদ্দিন, যুবলীগের সভাপতি সামস আলম, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি জসিম উদ্দিন,নবীনগর বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জনি,পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য শামীম রেজা,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু কাওসার,উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম রাজিব,আবু সাঈদ,সিটিভির সিইও রবিন সাইফ,মাসুম মীজা, মোঃ হেদায়েতউল্লাহ, সোহেল মিয়া,আবু সুফি ফতেহ আলী সফর আলী প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া প্রতিরোধে সবাইকে যার যার অফিস,বাড়ি ও পরিত্যক্ত যায়গা পরিষ্কারের পাশাপাশি সচেতন থেকে অবস্থার মোকাবেলা করতে আহ্বান জানান। পরে উপজেলা পরিষদ থেকে এক র‌্যালি বের হয়ে র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক পদক্ষিন করে।

আখাউড়ায় ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে পরীক্ষা কেন্দ্রে কোরবানীর পশুর হাট

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় শহীদ স্মৃতি সরকারী কলেজ মাঠে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে কোরবানীর পশুর হাট বসেছে। মঙ্গলবার ডিগ্রী পরীক্ষার ব্যবস্থাপনা ৪র্থ পত্রের পরীক্ষা ছিলো।  হাজার হাজার ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতিতে সরগরম হয়ে উঠে কলেজ মাঠ।  আখাউড়া পৌর পশুর হাট ইজারাদার আলাউল করিম পশুর হাট বসিয়েছেন।  ঈদের আগের দিন পর্যন্ত হাট চলবে। তবে কলেজের একাধিক শিক্ষক কলেজ মাঠে পশুর হাট বসায় অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।
আজ বেলা আড়াইটার দিকে সরেজমিনে শহীদ স্মৃতি সরকারী কলেজ মাঠে গিয়ে দেখা যায়, কলেজের তৃতীয় তলার একটি কক্ষে চারজন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিচ্ছেন।  কলেজ মাঠে শত শত গরু-মহিষ, ছাগল নিয়ে এসেছেন বিক্রেতারা।  হাজার হাজার ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতি সরগরম কলেজ মাঠ। কিছু ক্রেতা-দর্শনার্থীকে কলেজের বাড়ান্দায় বসে বিশ্রাম নিতেও দেখা যায়।  নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষক বলেন, কলেজের অধ্যক্ষের অাপত্তি সত্বেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কলেজ মাঠে পশুর হাটের অনুমতি দিয়েছেন। এ কারণে মাঠের সৌন্দর্য যেমন নষ্ট হচ্ছে, তেমনি পশুর বর্জ্যে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। আখাউড়া শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘কলেজ গর্ভনিং বডির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাহমিনা আক্তার রেইনা পশুর হাটের অনুমতি দিয়েছেন। এ ব্যপারে আমার কিছু করার নেই। ‘ হাটের ইজারাদার আলাউল করিম বলেন, ‘ইউএনও’র অনুমতি নিয়েই কলেজ মাঠে পশুর হাট বসিয়েছি। তাছাড়া বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিও অবগত আছেন।’
আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাহমিনা আক্তার রেইনা বলেন, ‘কলেজ মাঠে আলাদা বেষ্টনি দিয়ে চৌহদ্দি নির্ধারণ করে পশুর হাট বসানো হবে। তাছাড়া আজকের (গতকাল মঙ্গলবার) পরীক্ষায় মাত্র চারজন পরীক্ষার্থী। পশুর হাটের জন্য পরীক্ষার্থীর কোনো অসুুুবিধা হবার কথা নয়।’

ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান 

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ, এডিস মশার উৎপত্তিস্থল চিহ্নিতকরণ, প্রতিকার এবং নির্মূলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসন ও পৌরসভাসহ সর্বস্তরের জনগণ। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খানের নেতৃত্বে শহরেরর লোকনাথ ট্যাঙ্কেরপাড়, জগতবাজার, আনন্দ বাজার, তিতাস নদীর ঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে এই অভিযান পরিচালিত হয়।
ডেঙ্গু প্রতিরোধী এই অভিযানকালে পৌরমেয়র মিসেস নায়ার কবির, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শাহ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি-স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  এছাড়া পরিচ্ছন্নতা অভিযানে জেলা এবং উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষও স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহন করেন।

কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসনের প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ মিছিল

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসনের প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।  গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জেলা কওমী ছাত্র ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রসা প্রাঙ্গন থেকে মিছিলটি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণান্তে প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করে।
মুফতি আবদুল হকের সভাপতিত্বে ও কওমি ছাত্র ঐক্য পরিষদের মাওলানা আশরাফুল ইসলামের পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মুফতি এনামুল হাসান, মাওলানা ইউসুফ ভুইয়া প্রমূখ।  বক্তারা কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসন ও মুসলিমদের উপর নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান

গুজবে কান না দিতে শিবপুর পুলিশ ক্যাম্প এর উদ্দ্যোগে মাইকিং

ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলা,নবীনগর থানাধীন :

শিবপুর পুলিশ ক্যাম্প এর আওতায়ই নবীনগর পৃর্ব ছয় ইউনিয়ন এলাকায় পুলিশের মাইকিংগুজবে বিভ্রান্ত হয়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিঘ্ন না ঘটাতে মাইকিং করা হচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলছে পুলিশের সচেতনতামূলক প্রচারণা। বৃহঃপতিবার (১আগস্ট) অটোরিকশা করে বিদ্যাকুট, নাটঘর,শিবপুর,বিটঘর,কাইতলা উওর, কাইতলা দক্ষিন ছয়টি ইউনিয়ন এলাকায় মাইকিং করতে দেখা যায়। শিবপুর পুলিশ ক্যাম্প এএসআই মশিউর রহমান বলেন, ‘গুজবে কান না দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা নেওয়ার জন্য মানুষকে সচেতন করতে মাইকিং করে যাচ্ছি। কোনও এলাকায় অপরিচিত লোক দেখা গেলে পুলিশকে জানানোর আহ্বান জানানো হয়েছে।’ জেলা শ্রেষ্ঠ তদন্তকারী উপ- পুলিশ কর্মকতা শিবপুর পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ আব্দুর রহিম (সাংবাদিক )কে জানান, ‘গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে না নিতে নূরনগরবাসী কে অনুরোধ জানিয়ে পুলিশ মাইকিং করে যাচ্ছে নবীনগর পৃর্ব ছয় ইউনিয়ন এলাকায়। প্রয়োজনে পুলিশের সহযোগিতা নেওয়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে। যদি ছেলেধরা হিসেবে কাউকে সন্দেহ হয় তাহলে গণপিটুনি না দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিন।’

পাতানো মা-বাবাসহ পাসপোর্ট করতে গিয়ে রোহিঙ্গা কিশোরী আটক

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া:
সপ্তদশী রোহিঙ্গা কিশোরী মরিজান। অতি দরকারি একটি পাসপোর্ট করতেই কক্সবাজারের কুতুপালং থেকে চলে আসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। দুই উপজেলার দুইজনকে মা-বাবা সাজিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্মসনদ বানিয়ে হাজির হয় পাসপোর্ট অফিসে। কিন্তু এতেও হয়নি শেষরক্ষা। পাতানো মা-বাবাসহ আটক হলেন রোহিঙ্গা কিশোরী মরিজান। ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের।

গতকাল বৃহস্পতিবার (০১.০৮) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে তাদের তিনজনকেই আটক করা হয়। আটককৃত অপর দুইজন হলেন জেলার কসবা উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়নের নেমতাবাদ গ্রামের মোখলেছুর রহমান (৫০) ও আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্ধ ইউনিয়নের গিরিশনগর গ্রামের লিপা বেগম (৩৮)। অাটককৃত কিশোরী মরিজান কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। সে মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের জাকেরের মেয়ে। তবে জেলার কসবা উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রদত্ত

 জন্মসনদে মরিজানের নাম মোছাম্মৎ তানজিনা আক্তার ও বাবার নাম মো. মোখলেছ মুন্সী উল্লেখ করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক মো. জামাল হোসেন বলেন, ‘দুপুরে পাসপোর্ট করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আমার কাছে আসেন ওই রোহিঙ্গা কিশোরী। আমরা যেনো সন্দেহ না করি, সেজন্যই সাজানো বাবা-মাকে সঙ্গে নিয়ে আসে। কিন্তু তার সাথে কথা বলার সময় সন্দেহ হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদ সে রোহিঙ্গা নাগরিক বলে স্বীকার করে। পরে তাদের তিনজনকেই পুলিশে সোপর্দ করা হয়।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার পরিদর্শক (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বিষয়ের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘পাসপোর্ট অফিসের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা তাদেরকে আটক করে নিয়ে আসি। অাটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডেঙ্গু প্রতিরোধে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের র‌্যালী ও আলোচনা সভা

মোহাম্মদ হেদায়েতউল্লাহ্ নবীনগর থেকে: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে র‌্যালী ও আলোচনা সভা করেন নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃসায়মুল হুদা’র সার্বিক সহযোগিতায় এই সময় একাগ্রতা পোষন করেন নবীনগর উপজেলা প্রেসক্লাব,সেভ আওয়ার জেনারেশন,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড,সবুজ ও পরিচ্ছন্ন নবীনগর (স্বপ্ন),ব্লাড ডোনারস নবীনগর।
সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ র্যালী নিয়ে উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে নবীনগর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা করেন।
স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবু মোছা’র সভাপতিত্বে সহকারী প্রধান শিক্ষক কাজী ওয়াজেদ উল্লাহ জসিম এর সঞ্চালনায় এই সময় বক্তব্য রাখেন
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃসায়মুল, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ হাবিবুর রহমান, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম কে জসীম উদ্দিন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু কাওসার,স্বপ্ন’র সমন্বয়ক অনলাইন সিটিভির সিইও রবিন সাঈফ,সেভ আওয়ার জেনারেশন সহ সভাপতি জালাল উদ্দিন ব্লাড ডোনারস সম্পাদক দিদারুল হাসান প্রমুখ।
বক্তারা নবীনগর উপজেলায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে স্ব স্ব ক্ষেত্রে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার পাশাপাশি সামাজিক ভাবে সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান।
Attachments area

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মসজিদে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরে গভীররাতে মসজিদে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল বুধবার প্রেস ক্লাবের সামনে অগ্নিসংযোগকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার, উগ্রবাদী হিন্দু সংগঠন নিষিদ্ধের দাবী এবং প্রিয়া সাহা কর্তৃক ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিকট বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ প্রদানের প্রতিবাদে এদারায়ে তালিমিয়্যাহ (কওমী মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড)  ব্রাক্ষণবাড়িয়ার উদ্যোগে এই  মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুসিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মুফতি মোবারক উল্লাহ’র সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কওমী মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের সহ-সভাপতি আল্লামা শায়খ সাজিদুর রহমান, বোরহান উদ্দিন আল মতিন, বোরহান উদ্দিন কাসেমী, মুফতি এনামুল হাসান, মুফতি আব্দুল হক, মাওলানা আনোয়ার বিন মুসলিম, মুফতী জাকারিয়া খান, মাওলানা ইউসুফ ভুইয়া, মাও. আতহার আলী, জাকির হোসাইন, মাও. জুনায়েদ কাসেমী, মাও. মাসুদুর রহমান খান, মাও. ইসহাক আল মামুন, সৈয়দ মো. কাশেম, মাওলানা আবদুল মমিন ফুয়াদ, কওমী ছাত্র ঐক্য পরিষদের মাও. আশরাফুল ইসলাম, মাও. মোহাম্মদ আলী, মাও. কাওছার আহমদ, মাও. আবু বক্কর সিদ্দিক প্রমুখ।

মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালে বক্তাগণ বলে, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এখানে মুসলমান হিন্দু সহ বিভিন্ন ধর্মের অনুসারীরা সহাবস্থান করে আসছে দীর্ঘ সময় ধরে। কিন্তু আজ মুসলমান-হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিয়ে একটি মহল ধর্মীয় দাঙ্গা বাধিয়ে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করতে নানামুখী ষড়যন্ত্র আর চক্রান্ত করে যাচ্ছে। বক্তাগণ হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, মেড্ডার শান্তিবাগ জামে মসজিদে যারা অগ্নিসংযোগ করেছে তারা চতুষ্পদ জন্তুর চেয়েও নিকৃষ্ট। অবিলম্বে তাদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করতে হবে। অন্যথায় এরজন্য কোনো প্রকারের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে প্রশাসনকেই সকল দায় দায়িত্ব নিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ জুলাই বুধবার গভীর রাতে জেলা শহরের পূর্ব মেড্ডার শান্তিবাগ এলাকায় একটি মসজিদে দুর্বিত্তরা আগুন দেয়। এতে মসজিদে ২৪টি সিলিং ফ্যান, ৭০ হাজার টাকার কার্পেট, মরদেহ ধোয়া ও বহনের খাটিয়া, চেয়ার, মাদুরসহ ২৫ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

নদীভাঙন রোধ করা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া:
যে সমস্ত এলাকায় নদীভাঙন আছে, সেখানে বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে ভাঙন রোধ করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ। তাই আমরা বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে নদীভাঙন রোধের চেষ্টা করছি। কিন্তু আপনাদেরকে ধৈর্য ধরতে হবে। আজকে বলে গেলে কালকে থেকেই কাজ শুরু হবে না। আমাদেরকে সময় দিতে হবে।

গতকাল রোববার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার নদীভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করতে এসে উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নের নজরদৌলত গ্রামে আয়োজিত এক সভায় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এসব কথা বলেছেন।

মন্ত্রী আরো বলেন,আমরা ভাটির দেশের লোক, যখন আমাদের প্রতিবেশী দেশের পাহাড় থেকে ঢল নামে তখন আমাদের এখানে নদীপাড়ের ঘর-বাড়ি বিলীন হয়ে যায়। আর এজন্যই নদীভাঙন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুবই চিন্তিত থাকেন।

নদীভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন এবং জনসভায় বক্তৃতাকালে মন্ত্রীর সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মো. মাহফুজুর রহমান, নবীনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মনিরুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মাসুম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ হালিম প্রমুখরা উপস্থিত ছিলেন।

নবীনগর পূর্বাঞ্চলের কৃষকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারি মূল্যে ধান সংগ্রহ 

মোহাম্মদ হেদায়েতউল্লাহ্ নবীনগর খেকে:

শনিবার সকাল থেকে দিনব্যাপী ব্রাহ্মণবাড়ীয়া নবীনগর উপজেলার নাটঘর , বিদ্যাকুট , বিটঘর ইউনিয়ন এবং কুড়িঘর নান্দুরা -সহ বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রতৃক কৃষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারি মূল্যে ২৬ টাকা কেজি দরে ধান সংগ্রহ করা হয়েছে । এতে শতশত প্রকৃত কৃষক লোকসানের হাত থেকে রক্ষা পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সে সময় উপস্থিত ছিলেন তাছলিমা আক্তার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এল.এস.ডি নবীনগর , মোঃ সামছুল হুদা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ নবীনগর , মোঃ গিয়াসউদ্দিন নাঈম উপসহকারী কৃষি অফিসার নাটঘর জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নাটঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম , বিদ্যাকুট ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক ভিপি এনাম , বিটঘর ইউপির চেয়ারম্যান হাজ্বী আবুল হোসেন , এরশাদুল ইসলাম, আব্দুস সালাম মেম্বার, মোরশেদ মেম্বার, হাসান মেম্বার, স্বপন মেম্বার, ফাতেমা বেগম, রেহেনা বেগম। এ সময় কৃষকরা বলেন – “আমরা অনেক খুশি, ২৬ টাকা কেজি দরে ধান বিক্রি করতে পেরে আমরা আরো উৎসাহিত হব কৃষি কাজের জন্য”।

Play
Play
previous arrow
next arrow
Slider

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

তথ্য-প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার পথে একটি বড় বাধা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছিল। এই ধারার কারণে বহু সাংবাদিককে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা হয়েছে। অনেককে কারাগারেও যেতে...

চন্দনাইশ প্রতিনিধি : সদ্য সমাপ্ত ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চন্দনাইশ উপজেলা থেকে টানা তৃতীয়বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুল জব্বার চৌধুরী তৃতীয় মেয়াদের জন্য শপথ গ্রহণ শেষে চট্টগ্রাম থেকে চন্দনাইশে ফিরে...

previous arrow
next arrow
ArrowArrow
Slider

  ফারা মাহমুদা চৌধুরী (শিল্পী) মানবদরদী ও মানবহিতৈষি ব্যক্তিত্ব হিসেবে অতিথিদের হাত থেকে সম্মাননা পদক গ্রহণ করছেন।   ইমদাদুল হক তৈয়বঃ ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এই নৈতিকতাবোধ থেকেই বুকে নীতি আদর্শ...

Archives

Jan0 Posts
Feb0 Posts
Mar0 Posts
Apr0 Posts
May0 Posts
Jun0 Posts
Jul0 Posts
Aug0 Posts
Nov0 Posts
L0go

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি