সাংবাদিকতায় আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন: ০১৭১১৫৭৬৬০৩

Monthly Archive :মার্চ ২০১৯

৫০ মিলিয়ন ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক-কানাডা

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গার জন্য বিশ্ব ব্যাংক ও কানাডা সরকার ৫০ মিলিয়ন ডলার দেবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক। তিনি বলেছেন, এ টাকা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ব্যয় করা হবে।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সমঝোতা স্মারক সই শেষে সাংবাদিকদের  তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ, ইউএনএফপিও, আইএমও এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে এ সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক সই হয়। এ সময় সংশ্লিষ্ট সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক বলেন, রোহিঙ্গাদের সহায়তায় আজ বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ৫০ মিলিয়ন ডলারের একটি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে। এর মধ্যে বিশ্বব্যাংক দিচ্ছে ৪১ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ডলার। আর কানাডা সরকার দিচ্ছে ৮ দশমিক ৩৩ মিলিয়ন ডলার। সবমিলিয়ে ৫০ মিলিয়ন ডলার। এই ৫০ মিলিয়ন ডলার রোহিঙ্গাদের সাহায্য সহযোগিতার জন্য ব্যবহার করা হবে।

তিনি বলেন, বিশ্ব ব্যাংক ইতোমধ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য দুইশ’ মিলিয়ন ডলার দিয়েছে। তারা আরও ৩০০ মিলিয়ন দেয়ার কথা জানিয়েছেন। এছাড়া আজ সমঝোতা চুক্তির মাধ্যমে ৫০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে তারা।

‘এর মধ্যে ৩৫ মিলিয়ন ডলার চারটি এজেন্সিকে দেয়া হবে। তারা রোহিঙ্গাদের ঘর-বাড়ি নিমাণ, চিকিৎসা ও অন্যান্য খাতে ব্যয় করা হবে। বাকি ১৫ মিলিয়ন ডলার অর্থ ব্যয় হবে সংশ্লিষ্ঠ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে।’

রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, শিগগির এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাষানচরে স্থানান্তর করা হবে। সেখানে তাদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চত করতে একটি ক্লিনিক নির্মাণ করা হচ্ছে। আমরা তাদের স্বাস্থ্যসেবার জন্য সব কাজ করে যাচ্ছি। এছাড়া রোহিঙ্গাদের জন্য ঘর-বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে।

ডা. জাহিদ মালেক বলেন, এই টাকার মধ্যে ৩৫ মিলিয়ন ডলার ৪টি এজেন্সির মাধ্যমে ব্যয় করা হবে। আর বাকি ১৫ মিলিয়ন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ব্যয় করবে। এর মধ্যে আইএমও ১২ মিলিয়ন, ইউএনএফপিএ ৯ মিলিয়ন, ইউএনআইসিইএফ ৮.৫ মিলিয়ন, ডব্লিইউএইচও ৫.৫ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করবে।

চলৎশক্তিহীন করার জন্য সুচিকিৎসা করানো হচ্ছে না খালেদা জিয়াকে

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে চলৎশক্তিহীন করার জন্য সুচিকিৎসা করানো হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, দেশনেত্রীকে আদালতে আনার আগে অসুস্থতায় থরথর করে কাঁপছিলেন। তাকে কোন চিকিৎসা না দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জোর জবরদস্তি করে হুইলচেয়ারে বসিয়ে ক্যাংগারু কোর্টে হাজির করা হয় ।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, হাতের মুঠোয় প্রাণ নিয়ে যিনি এই স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে জীবন মৃত্যুকে পরম ভৃত্য করে রণাঙ্গনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন অসীম সাহসে, যার ঘোষণায় গোটা জাতি মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো, সেই বীরউত্তম শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সহধর্মিনী দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে হত্যা করতে উন্মত্ত হয়ে উঠেছে বর্তমান গণবিচ্ছিন্ন অবৈধ সরকার।

তিনি বলেন, আজ আর দেশের মানুষের বুঝতে এতটুকু বাকি নেই যে, প্রধানমন্ত্রীকে চরম প্রতিহিংসার বাসনা চরিতার্থ করতে পেয়ে বসেছে। তিনি পরিত্যক্ত অন্ধকার স্যাঁতসেতে কারাগারে গুরুতর ও চূড়ান্ত অসুস্থ দেশনেত্রীর যন্ত্রণার ছটফটানি দেখে আনন্দ উপভোগ করছেন।

সরকার খালেদা জিয়াকে জীবিত দেখতে চায় না মন্তব্য করে রিজভী বলেন, আজ দিবালোকের মতো পরিস্কার যে,তিনি অকল্পনীয় জনপ্রিয় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জীবিত দেখতে চান না। চিকিৎসার অভাবে গুরুতর অসুস্থ ৭৪ বছরের একজন নারী দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে প্রহসনমুলক বিচারের জন্য কারাগারে স্থাপিত মিডনাইট ইলেকশনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্যাঙ্গারু আদালতে টেনে-হিচড়ে প্রায় প্রতিদিনই হাজির করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর কথা ও কাজের মধ্যে বিস্তর ব্যবধান মন্তব্য করে রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা বলেন-আমি বঙ্গবন্ধুর কন্যা, আমার ক্ষমতার দরকার নাই, আবার মিডনাইট নির্বাচনের মাধ্যমে অবৈধ প্রধানমন্ত্রিত্ব ধরে রাখেন। তিনি তো নৃশংসতায় হিটলার-হালাকু খানদের ছাড়িয়ে গেছেন।

ক্ষতি করে উন্নয়ন সম্ভব নয়

দেশের জনগণের ক্ষতি করে উন্নয়ন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, উন্নয়ন করতে গিয়ে গরীব মানুষের জীবন ও জীবিকা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে সংশ্লিষ্টদের খেয়াল রাখতে হবে।

বৃহস্পতিবার মহেশখালী-মাতারবাড়ি সমন্বিত অবকাঠামো উন্নয়ন কার্যক্রম প্রকল্পের উপস্থাপনা অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এই পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকের বিষয়বস্তু সাংবাদিকদের জানান প্রধানমন্ত্রীর ‘স্পিচ রাইটার’ মো. নজরুল ইসলাম।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক সময় দেখা যায়, প্রকল্প করতে গিয়ে মানুষের জমি অধিগ্রহণ করতে হয়। তারা যেন সময়মতো জমির যথাযথ মূল্য পায়, তাতে দৃষ্টি দিতে হবে।

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালী নিয়ে বড় অর্থনৈতিক পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে সরকার। জাপানের সহায়তায় মাতারবাড়িতে ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণ এই পরিকল্পনার অংশ। বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলও হচ্ছে সেখানে।

শেখ হাসিনা বলেন, মহেশখালী-মাতারবাড়ি সমন্বিত অবকাঠামো উন্নয়ন কার্যক্রম হলে কেবল ওই অঞ্চলেই নয় পুরো বাংলাদেশের অর্থনীতিতে তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। একটা সময়ে কক্সবাজারে কিছুই ছিল না। পুরো কক্সবাজারে লবণ চাষ হত ও পান চাষ করত। কক্সবাজারকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। কক্সবাজারের জনগণের মতামত নিয়েই এই উন্নয়ন কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

কক্সবাজারে ঠাঁই নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর পরিকল্পনাও হচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। এতে সফল হতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চাওয়ার কথাও বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, কক্সবাজারের বিরাট সম্ভবনা তৈরি হয়েছে। এই অঞ্চলকে পর্যটন শিল্পের পাশাপাশি অর্থনৈতিক অঞ্চল হিসেবে গড়ে তোলা হবে। সেখানে ঢাকা থেকে সরাসরি ট্রেন চালু হবে। বিমানবন্দরের উন্নয়নও করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, সচিব, প্রকল্পের জাপানি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সেমি-অটোমেটিক অস্ত্র নিষিদ্ধ

এক সপ্তাহ আগে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলায় ব্যবহার করা সব ধরনের সেমি-অটোমেটিক অস্ত্র নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ডে সরকার। এমনটাই জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডের্ন।

গত শুক্রবার দুটি মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫০ জনকে হত্যার ঘটনার পর থেকে আলোচনায় চলে আসে দেশটির অস্ত্র আইন বিষয়টি।

মিজ আরডের্ন বলেছেন, তিনি আশা করছেন আগামী ১১ই এপ্রিলের মধ্যে নতুন আইনটি কার্যকরী হবে।

তিনি জানান, নিষিদ্ধ ঘোষণা করা অস্ত্রের জন্য একটি বাই-ব্যাক স্কিম চালু করা হবে এবং সেটি করা হবে যাতে করে আইনটি চালুর আগে এ ধরনের অস্ত্র কেনার জন্য হিড়িক না পড়ে যায়।

“এখন, হামলার ঘটনার ছয় দিন পরে, আমরা নিউজিল্যান্ডে সব ধরনের সামরিক কায়দার সেমি-অটোমেটিকের (এমএসএসএ) এবং অ্যাসল্ট রাইফেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করছি,”-বলেন প্রধানমন্ত্রী মিজ আরডের্ন।

‌তিনি আরও বলেছেন, এছাড়া যেসব অংশ-বিশেষ যুক্ত করে অস্ত্রকে এমএএসএ-তে রূপান্তর ঘটানো যায় আনুষঙ্গিক সে ধরনের অস্ত্রও নিষিদ্ধ হবে, সেই সাথে সমস্ত উচ্চ-শক্তি সম্পন্ন ম্যাগাজিনও।

মিজ আরডের্ন বলেন, কর্মকর্তারা ধারণা করছেন বাই-ব্যাক স্কিমের ব্যয় “যেকোনো স্থানে ১০০ মিলিয়ন ডলার থেকে ২০০ মিলিয়ন ডলারের মধ্যে হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের সমাজের মানুষের নিরাপত্তার জন্য আমরা এই মূল্য অবশ্যই পরিশোধ করবো।”

এ বিষয়ে দেশটির পুলিশ বিষয়ক মন্ত্রী স্টুয়ার্ট ন্যাশ বলেছেন, “আমি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই যে, নিউজিল্যান্ডে আগ্নেয়াস্ত্রের মালিকানা বিশেষ এক ধরনের সুবিধা, এটা কোনও অধিকার নয়।”

চলাচলের লাইসেন্স ছিল না সুপ্রভাতের

রাজধানীর বসুন্ধরা গেট এলাকায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীকে চাপা দিয়ে মেরে ফেলা সুপ্রভাত পরিবহনের বাসটির ঢাকায় চলাচলের অনুমতি ছিল না। ঢাকা-ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রুট পারমিট ছিল ওই বাসটির। শুধু তাই নয়, ওই বাসটির নামে এর আগে ২৭ বার মামলা দেওয়া হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) দুপুর মহানগর নাট্যমঞ্চে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব তথ্য জানান ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

এসময় কমিশনার প্রশ্ন রাখেন, ‘তাহলে সুপ্রভাত পরিবহনের এই বাসটি রাজধানীতে কিভাবে চলাচল করছিল?’ এই অনিয়মের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়ী করেন তিনি।

জনগণের ভোট নয়,শুধু নৌকা প্রতীক লাগে

উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হতে জনগণের ভোট লাগে না শুধু নৌকা প্রতীক লাগে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হতে নৌকা প্রতীক লাগে, জনগণের ভোট লাগে না। অলিখিত বাকশাল তো এখনও চলছে। সেইসাথে আছে বাকশালের রক্ষী বাহিনীও। দেশে এখন শুধু একদল নয়, এক ব্যক্তির বেপরোয়া শাসন চলছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

ক্ষসতাসীনদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, চোখ কান খোলা রেখে জনগণের দিকে তাকিয়ে দেখুন তারা কি চাচ্ছে। তাদের ফুঁসে ওঠার সময় এসেছে। খালেদা জিয়া এখন প্রতিটি মানুষের ভালোবাসা। গণতন্ত্রের মায়ের জন্য তার আন্দোলনরত সন্তানরা সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত হয়ে আছেন। যেকোন সময় জনতার বিস্ফোরণ শুরু হবে-যা কল্পনাও করতে পারছেন না। তাই সরকারকে বলছি-আজই নিজেদের শোধরান। বেগম জিয়াকে মুক্তি দিন।

তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত সব পরীক্ষা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত সব পরীক্ষা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্তনিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরীক্ষার বদলে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নে কর্মশালার মাধ্যমে বিশিষ্টজনদের মতামত নিয়ে চূড়ান্ত করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী মন্ত্রণালয় এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন।

আকরাম-আল-হোসেন বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা পদ্ধতি বাদ যাচ্ছে। এসব শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কীভাবে মূল্যায়ন করা যায় সেজন্য জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)-সহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বসে শিগগিরই চূড়ান্ত করা হবে।

তিনি আরো জানানা, প্রাক-প্রাথমিকের সময়কাল এক বছর থেকে বাড়িয়ে দুই বছর করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে পরীক্ষা বাদ দেওয়ার বিষয়টি বাস্তবায়ন হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার চাপ কমাতে সম্প্রতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণীর সব পরীক্ষা তুলে দিতে মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেন বলে জানান মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অবস্থান কর্মসূচি

এমপিওভুক্তির দাবিতে সড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি পোলন করছেন দেশের বিভিন্ন এলাকার নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকাল ১১টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়েছেন তারা। এতে ওই সড়ক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। সড়কের উভয়পাশেই যানবাহন আটকা পড়েছে।

এর আগে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে পদযাত্রা শুরু করে নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশন। কিন্তু পুলিশি বাঁধার মুখে তাদের পদযাত্রা সেখানেই থমকে যায়।

আন্দোলনরত শিক্ষকেরা জানান, এমপিওভুক্তি না করা পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরে যাবেন না।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, আমরা সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে পদযাত্রা করতে চাইলে আমাদের আটকে দেয়া হয়। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চাই, তাকে আমরা আমাদের কথা জানাতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পাওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছেড়ে যাবো না।

তিনি বলেন, এর আগে ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব আমাদের আশ্বাস দিয়ে বলেছিলেন, শিক্ষকদের দাবি মেন নেওয়া হয়েছে। আমরা ঘরে ফিরে যাই। কিন্তু দাবি এখনও বাস্তবায়ন হয়নি।

‘আমাদের ধারণা প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি জানানো-ই হয়নি। আমরা আজ প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের মাধ্যমে তাকে বিষয়টি অবহিত করতে চাই। আমাদের বিশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেলে তিনি এ দাবি মেনে নেবেন।

জাজিরাপ্রান্তে সেতুর নবম স্প্যান

পদ্মা সেতুর জাজিরাপ্রান্তে সেতুর নবম স্প্যান ও জাজিরাপ্রান্তের অষ্টম স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) ‘৬ ডি’ ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর বসানোর কাজ বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) শুরু হয়েছে। স্প্যানটি বসানো হলে জাজিরাপ্রান্তে ১২০০ মিটার ও মাওয়াপ্রান্তে ১৫০ মিটার সেতু দৃশ্যমান হবে। সব মিলিয়ে সেতুর ১৩৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে।

সকাল থেকেই ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের স্প্যানটিকে ভাসমান ক্রেনের সাহায্যে বসানোর কার্যক্রম শুরু হয়। এর আগে বুধবার সকালেই মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে জাজিরায় স্প্যানটি নিয়ে আসা হয়।

সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির জানান, ‘স্প্যান এখনো লিফটিং শুরু হয়নি। স্প্যান বহনকারী ক্রেনটি পিলারের কাছে আছে। বর্তমানে পজিশনিং করার কাজ চলছে। এরপর পিলারের ওপর বসানো হবে।’

উল্লেখ্য, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুর ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১, ৪২ পিলারে সাতটি স্প্যান বসানো হয়েছে ও মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে একটি অস্থায়ী স্প্যান রাখা হয়েছে।

ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মালামাল পুড়ে ছাই

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ্  ব্রাহ্মণবাড়ীয়া থেকে:নবীনগর রসুলপুর গ্রামে ২ টি বসতঘরের ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, ৩ টি গরু সহ ৯ লক্ষাধিক টাকার মালামাল পুড়ে ছাই। ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার নাটঘর ইউনিয়ন রসুলপুর গ্রামের মৃত আবু নাছের মোল্লার ছেলে মোঃ আনুয়ার হোসেনের বাড়িতে বৃহস্পতিবার রাত ১ টায় এই ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে দুটি বসতঘরের অাসবাবপত্র, নগত একলক্ষ টাকা ও স্বর্ণ অলংকার এবং বোবাপ্রাণী ৩ টি গরু সহ প্রায় ৯ লক্ষাধিক টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এ অগ্নিকান্ডে একালাকাবাসী, শোকের এক কালো রাত পার করলো। এখনো জানা যায়নি আগুনে সূত্রপাত, কে বা কারা এই অগ্নিকান্ড ঘটিয়েছে। তবে শিবপুর অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের এস অাই এহসানুল হাসান , এই অগ্নিকান্ডের গঠনা ইতিমধ্যে খতিয়ে দেখছেন বল যানান। প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা করে এলাকাবাসি আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। অনেক প্রচেষ্টায় অাগুন নেভানো হলেও ক্ষয়-ক্ষতি তাৎক্ষণিক নিরুপন করা যায়নি। টিনের ঘরের অাধুনিক সব সরঞ্জামাদি, নগত একলক্ষ টাকা ও স্বর্ণ অলংকার ও ৩ টি গরু সহ অাসবাবপত্র অাগুনে পুড়ে ছায় হয়ে গেছে। মোঃ আনুয়ার হোসেনের ছেলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ধগ্ধ হয়ে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সদর হাসপাতালে রয়েছেন।

Play
Play
previous arrow
next arrow
Slider

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন

তথ্য-প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার পথে একটি বড় বাধা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছিল। এই ধারার কারণে বহু সাংবাদিককে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে অনেক মামলা হয়েছে। অনেককে কারাগারেও যেতে...

রাজধানীর বাড্ডা লিংকরোড থেকে বাসে উঠতেই দেখা গেলো ড্রাইভার ও হেলপার মজার এক টি-শার্ট পরে আছেন! টি-শার্টের গায়ে লেখা ‘আজ থেকে আমার শপথ, নিয়ম মেনে চলব পথ’। এরপর বাস থেকে নামতেই...

previous arrow
next arrow
ArrowArrow
Slider

  ফারা মাহমুদা চৌধুরী (শিল্পী) মানবদরদী ও মানবহিতৈষি ব্যক্তিত্ব হিসেবে অতিথিদের হাত থেকে সম্মাননা পদক গ্রহণ করছেন।   ইমদাদুল হক তৈয়বঃ ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এই নৈতিকতাবোধ থেকেই বুকে নীতি আদর্শ...

Archives

Apr0 Posts
May0 Posts
Jun0 Posts
Jul0 Posts
Aug0 Posts
Sep0 Posts
Oct0 Posts
Nov0 Posts
Dec0 Posts
Jan0 Posts
Feb0 Posts
Mar0 Posts
Apr0 Posts
May0 Posts
Jun0 Posts
Jul0 Posts
Aug0 Posts
Nov0 Posts
L0go

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি